(BBA Professional) নকলের কারখানা তেজগাঁও মহিলা কলেজ – দেখার কেউ নেই।

সর্বোচ্চ শেয়ার চাই, আপনাদের কাছে অনুরোধ।

আমি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর অধীনে একটি বেসরকারি আবুজর গিফারী কলেজে BBA প্রফেশনাল এ পড়তেছি।
.
আমরা আজ ( ১৪-১১-২০১৯ ) ৫ম সেমিস্টার পরীক্ষা শেষ করলাম। আমাদের সেন্টার পরে তেজগাঁও কলেজে, আমাদের সাথে একই রুমে পরীক্ষা দেয় খিলগাঁও মডেল কলেজ এবং তেজগাঁও মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা। এই সেমিস্টার এ একটি পরীক্ষায় তেজগাঁও কলেজের ম্যাডাম তেজগাঁও মহিলা কলেজের প্রায় সব শিক্ষার্থীদের কাছে নকল ধরে, ২-৩ জন বাদে সবাই নকল নিয়ে এসেছে। তেজগাঁও কলেজের ম্যাম খাতা নিয়ে ১০ মিনিট রেখে আবার দিয়ে দেয়। তেজগাঁও মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোন দিয়ে নকল করে এবং ধরেও কিছুক্ষণ রেখে আবার খাতা দিয়ে দেয়। আজকেও মহিলা কলেজের ঐ নকল করা সবাই নকল নিয়ে আসছিল এবং একজন কে মোবাইল সহ ধরেছিল। আবার খাতা দিয়ে দিয়েছে।
আমি এইকথা ম্যাম কে বলার পরেও সে কোনোরকম কিছুই বলেনি তাদের, নকল নিয়ে এসে দেখে দেখে খাতায় লিখেছে। কেউ কিছুই বলেনা মহিলা কলেজের তাদের।
আমাদের মধ্যে কেউ একটু আরেকজন এর খাতা দেখে লিখলেই উঠিয়ে অন্য জায়গায় দিয়ে দেয়। এইরকম চুরিবিদ্যা দিয়ে আমাদের ভবিষ্যৎ এর কতবড় ক্ষতি হচ্ছে সেটা কি তারা জানেন নাহ? ওরা নকল করে সিজিপিএ বেশি আসছে আর আমরা ভাবছি তারা কত ব্রিলিয়ান্ট।
যারা চুরিতে সাহায্য করছে তারাও তো একধরনের অপরাধী? এই বিষয় দেখার কি কেউ নেই?? এই মেয়েরা নকল করা মানে আগামী ভবিষ্যৎ কত কত পরিবারে নেমে আসবে অন্ধকার তা ভাবার বাহিরে।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং শিক্ষা বোর্ড এর কেউ দেখে থাকলে প্লিজ আমাকে জানাবেন কোথায় অভিযোগ দিলে এই চুরি, অনিয়ম বন্ধ হবে?

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.