গুগল এডসেন্স এখন বাংলায়

গুগল এডসেন্স এখন বাংলায়


লেখালেখি করে আয় করার একটা চমৎকার মাধ্যম হচ্ছে গুগল এডসেন্স। যারা টুকটাক লেখালেখি করে বাংলায়, এতদিন তাদের বাংলা কন্টেন্টে বৈধ ভাবে গুগল এডসেন্স ব্যবহার করা যেতো না। আর যাদের এপ্রুভড এডসেন্স একাউন্ট ছিল, তারা সে একাউন্ট দিয়ে বাংলা কন্টেন্টে এড দিলেও খুব একটা রেভিনিউ হতো না। আজ থেকে গুগল এডসেন্সে অফিশিয়াল ভাবে বাংলা সাপোর্ট করবে। এখন যে কেউ বাংলা কন্টেন্টে এডসেন্স ব্যবহার করতে পারবেন।

যদিও ইংরেজী কন্টেন্টে আগে থেকে বাংলাদেশ থেকে এডসেন্স সাপোর্ট ছিল। বাংলাদেশে অনেকেই অনেক ভালো আয় করত এবং এখনো করছে। ব্লগ লিখে অনেক ভালো আয় করা যায়। এছাড়া এডসেন্স ছাড়াও আরো অনেক ভাবে ব্লগ বা ওয়েব সাইট থেকে আয় করা যায়, যেমন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং।

আমরা অনেকেই ফেসবুকে অনেক স্ট্যাটাস লিখে থাকি। স্ট্যাটাস আকারে না লিখে নিয়মিত ব্লগ আকারে লিখলে এখন থেকে নিজের লেখা গুলো থেকেই আয় করার একটা সুযোগ পাওয়া যাবে। যেহেতু বাংলায় এডসেন্স সাপোর্ট রয়েছে, ইংরেজী দক্ষতা ছাড়াও সুন্দর কন্টেন্ট লিখে সাবলম্বী হওয়া যাবে।

ব্লগ লেখার জন্য আপনাকে খুব একটা এক্সপার্ট হতে হবে না। আপনি পড়ালেখা করেন যে বিষয়ে, ঐ বিষয় নিজে জানার পাশাপাশি লিখে রাখতে পারেন যেন নতুনরা উপকৃত হয়। লিখতে পারেন আপনার পছন্দের বিষয়ে, যেমন ক্রিকেট, ফুটবল বা যে কোন খেলাধুলা, রান্না বান্না, বই নিয়ে রিভিউ, কোন গ্যাজেট নিয়ে রিভিউ, খাবার দাবার, লাইফস্টাইল সহ আরো কত কিছু। মনে রাখতে হবে যেন অন্যের কন্টেন্ট নিজের ব্লগে কপি পেস্ট না করা হয়। যে কোন কিছু নিজের মত করে লিখতে হবে। আর যদি কপি পেস্ট করা হয়, গুগল পেনাল্টি হিসেবে এডসেন্স একাউন্ট ব্যান করে দিতে পারে।

লেখালেখি প্রকাশ করার জন্য একটা ওয়েব সাইট লাগে। তার জন্য প্রতিবছর টাকা গুনতে হয়। যারা ফ্রিতে শুরু করতে চাচ্ছেন, তাদের জন্য দারুণ একটা সুযোগ হতে পারে blogspot.com এ একটা ব্লগ খুলে লেখালেখি। এখানে ফ্রিতে একটা সাবডোমেইন পাওয়া যাবে। এছাড়া লেখালেখি করার জন্য প্রয়োজনীয় টুলস যুক্ত রয়েছে। এছাড়া এখানে এডসেন্স দিয়ে এডও দেখানো যাবে। এটা দিয়ে শুরু করলে অনলাইনে কিভাবে নিজের লেখা প্রকাশ করা যায়, কিভাবে ব্লগ বা ওয়েব সাইট গুলো কাজ করে, এসব সম্পর্কে আইডিয়া হয়ে যাবে। এরপর ভালো আইডিয়া হলে নিজস্ব ওয়েব সাইট খুলতে পারবেন। কারণ ভালো রেভিনিউর এর জন্য দরকার নিজস্ব ওয়েবসাইট।

লেখালেখি যাদের ভালো লাগে, তাদের জন্য এটা দারুণ একটা সুযোগ। যারা পড়ালেখা করে, এ সুযোগকে কাজে লাগালে নিজের পকেট খরচ নিজেই উঠাতে পারবেন। এছাড়া ভালো লিখতে পারলে এখানেই ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ রয়েছে। একজন ভালো লেখক প্রতি ঘন্টায় ১০০ ডলার বা তারো বেশি উপার্জন করতে পারে।

শুভ কামনা, সবার জন্য

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.