কালো ছেলেটির ভালোবাসা!

Share On Social

বয়স আমার খুব বেশী না, সবেমাত্র ১৮ শেষ করে ১৯ এ পা দিলাম।
সত্যি বলতে এ ১৮ বছর বয়সেই আনস্মার্ট আর গরীবের ঘরে জন্ম নেয়ার মত অনিচ্ছাকৃত অপরাধের সাজা পেয়েছি। 🙁
.
এই সমাজ, সমাজের মানুষগুলার কাছে হয়তো আমরা মানুষই না, কারন আমি গরীব, অন্য ৮-১০ টা ছেলের মত স্মার্ট না। 🙁
.
আমার লাইফে কোন মেয়ে বা ভালোবাসা ছিলোনা, কারন এসব আমারমত ছেলের জন্য বেমানান সেটা আমি খুব জানি। কিন্তু তবুও একবার নিজের অনিচ্ছাতেও একটা মেয়ের সাথে পরিচয়।
.
ফেসবুকের মাধ্যমে হলেও পরে জানতি উনি আমাদের পাশের এলাকার। যাইহোক, কথা হতো প্রায়।
কেমন আছেন, কি করেন এতটুকুই।
.
এভাবে কথা বাড়তে থাকে, আমি বেশী কথা বলতামনা কারন আমারতো মায়া বাড়ানোও পাপ।
কিন্তু প্রতিদিনই তার প্রোফাইল থেকে ঘুরে আসতাম। মনোযোগ দিয়ে প্রতিটা ছবি দেখতাম।
একসময় আমি বুঝতে পারলাম আমি তার উপর অনেকটাই দূর্বল হয়ে গেছি।
কিন্তু তাকে বলার মতো সাহস আমার ছিল না। কারন সে পরীর মতো সুন্দরী।
আর আমি একটা কুৎসিত চেহারার মানুষ।
কোন মেয়েরই পছন্দ হওয়ার মতো না।
সে অনেকবার আমার পিক চেয়েছে।
দেইনি। সে যদি এই কুৎসিত মানুষটার সাথে ফ্রেন্ডশিপও রাখতে না চায়…সেই ভয়ে!☺
.
সে ও যে আমার প্রতি দূর্বল ছিল তা আমি বুঝতাম। না বোঝার ভান করতাম। একদিন সে আমাকে অবাক করে দিয়ে প্রপোজ করে বসে!
সেদিন আমি তাকে অনেক বুঝিয়েছি। বলেছি আমার সাথে তাকে মানাবে না?।
কিন্তু সে তার কথায় অনড়। সে বারবার একটা কথাই বলেছিল…আমার চেহারা যেমনই হোক…সে আমাকেই ভালোবাসে। ভরসা পেয়েছিলাম তার কথায়☺
ভালোবাসা নাকি চেহারা দেখে নয় মন দেখে হয়! -_-
তারপর থেকে আমাদের রিলেশন শুরু।
.
অনেক বেশি ভালোবাসতাম তাকে। সে ও বাসতো। অনেক টেক কেয়ার করতো। আর বলতো….ছেড়ে যাবে না তো কখনো? ?
.
আমি যাইনি?। সেই চলে গেছে আমাকে ছেড়ে?
.
আমি রিলেশনের পরেও তাকে ছবি দেইনি। সে ও তেমন জোর করেনি। বলেছিলাম একবারে দেখা হলে দেখে নিও?।
.
তার বার্থডের দিন তারসাথে প্রথম দেখা করি।
সত্যি বলতে ফোনে কথা বলার সময় বা মেসেজের সময় তার যে আগ্রহ দেখতাম সেদিন সেটা ছিলোনা।
বিরক্তির একটা ভাব ছিলো তার চেহারায়। 🙁
.
এভাবে সাপ্তাহখানেক চলে যায়, সে আস্তে আম্তে ইগ্নোর করতে থাকে, একদিন রাতে দেখি সে আমাকে লম্বা এক ম্যাসেজ লিখে ফেবু থেকে ব্লক করে দিয়েছে?। নাম্বার ও ব্লক?
.
তার ম্যাসেজে যা লেখা ছিল তা হলো…সে আমার সাথে রিলেশন রাখতে পারবে না। তার বন্ধু-বান্ধবী আমাকে দেখলে হাসাহাসি করবে। তার সাথে আমার যায় না?
আর কখনো যোগাযোগ হয়নি তার সাথে। 🙂
.
সত্যি বলতে আমি মেয়েটাকে কোন দোষ দিইনাই, এখনো দিবোনা, দোষ যদি দেই তবে সেটা আমার, আমার কপালের, আমার ভাগ্যের। কারন ভাগ্য দোষেই আমি একটা আনস্মার্ট কৎসিত একটা ছেলে। 🙂
.
কুৎসিত মানুষদের আসলে ভালোবাসার অধিকার নেই☺। কেউ নেই ভালোবাসার মতো☺।
এই সমাজ, সমাজের মানুষগুলা শুধু তাদের অবহেলার চোখেই দেখে, কিন্তু দিনশেষে তাদের চাপা কান্না আর চোখের জল কেউ দেখেনা। 🙂
.
ভালো থাকুক এ সমাজ, ভালো থাকুক এই সমাজের মানুষগুলা সেইসাথে ভালো থাকুক আমারমত মানুষগুলা যাদের জীবনে ভালোবাসা আর আবেগ বড়ই বেমানান। 🙂 ❤
.
লেখকঃ Shofiul Alam
পোস্টঃ Facebook Post Link

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.